নির্ভয়াকাণ্ডের ছায়া দক্ষিণ দিনাজপুরে

নির্ভয়াকাণ্ডের ছায়া দক্ষিণ দিনাজপুরে
SHARES
Share on FacebookShareTweet on TwitterTweet

ওয়েব ডেস্ক: বছর আঠাশের এক মানসিক ভারসাম্যহীন এক যুবতিকে গণধর্ষণের পর তাঁর যৌনাঙ্গে লোহার রড ঢুকিয়ে দেওয়া হয়। শনিবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে কুশমণ্ডি থানার দেহাবন্দ এলাকায়।

নির্ভয়াকাণ্ডের ছায়া দক্ষিণ দিনাজপুরে
নির্ভয়াকাণ্ডের ছায়া দক্ষিণ দিনাজপুরে

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌছায় পুলিশ। আশঙ্কাজনক অবস্থায় ওই যুবতিকে রায়গঞ্জ জেলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। অবস্থা আশঙ্কাজনক থাকায় সেখানে তার অস্ত্রোপচার করা হয়। পরে অবস্থার আরো অবনতি হওয়ায় তাঁকে মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়।

অপরদিকে এই ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য একজনকে আটক করেছে কুশমণ্ডি থানার পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, নির্যাতিতা যুবতির বাবা-মা ১৪-১৫ বছর আগে মারা যান। বছর আটেক আগে বিহারের এক যুবকের সাথে বিয়ে হয় ঐ যুবতির। বিয়ের পর পরই মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে পড়েন। সেই থেকে দেহাবন্দের ঘাটপাড়া এলাকায় বাড়িতেই থাকতেন। প্রতিবেশীরাই তাঁকে খাবার দিত। এভাবেই চলছিল।

অভিযোগ, মেলা থেকে খানিকটা দূরে কয়েকজন যুবক তাঁকে একটি ব্রিজের নিচে সরষে খেতে তুলে নিয়ে গিয়ে গণধর্ষণ করে। পরে যুবতির যৌনাঙ্গে হাত ও রড ঢুকিয়ে দেওয়া হয়। চিৎকার শুনে স্থানীয়রা ছুটে আসেন।

স্থানীয় আদিবাসী সমাজ ও লোকশিল্পী কল্যাণ মঞ্চের সভাপতি বুধন হেমব্রম বলেন, “আমরা অভিযুক্তদের শাস্তি চাইছি। প্রশাসন দ্রুত অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করুক। না হলে আমরা বৃহত্তর আন্দোলনে নামব।”

ADVERTISEMENT
ADVERTISEMENT

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *