সফল অস্ত্রপচারে টিউমার বাদ দেওয়া হল ছোট্ট পূজা’র

SHARES
Share on FacebookShareTweet on TwitterTweet

তরুনা মণ্ডল

তখন সকাল সাড়ে ন’টা। কলকাতার জে.এন.রায় হাসপাতালের জেনারেল ও.টি’র বাইরের পরিবেশ তখন এক্কেবারে থমথমে। ৯:৪০ নাগাদ অপারেশন থিয়েটারের বাইরে দাঁড়িয়ে তখন ভগবানকে ডাকছেন উত্তরবঙ্গের ফালাকাটা থেকে আগত রমেশ মন্ডল ও সুচিত্রা মন্ডল।

২ বছর আগে
২ বছর আগে
বার করা সেই টিউমার
বার করা সেই টিউমার

তাদের আড়াই বছরের মেয়ে পূজা জন্ম থেকেই বাঁদিকের গালে একটা বিশাল টিউমার নিয়ে জন্মেছে। মায়ের কথায়, ‘মেয়ে মানুষ, বিয়ে তো দিতে হবে বড় হলে, আমরা লোকের বাড়িতে কাজ করে খাই, আমাদের তো আর এর থেকে বেশি কিছু ভাবার সামর্থ্য নেই’। ফালাকাটা, ধুপগুড়ি, জলপাইগুড়ি ইত্যাদি জায়গায় ছোট থেকেই বহু ডাক্তার দেখিয়ে কোন ফল মেলেনি। অবশেষে ফালাকাটা’র এক এনজিও এগিয়ে আসে এই গরীব বাবা-মা’র পাশে। ফেসবুকে ভাইরাল করা হয় ছোট্ট পূজার ছবি। সেখানেই ঘুরে যায় গল্পের মোড়। গরীব বাবা মায়ের পাশে এসে দাঁড়ায়, প্রাক্তন সাংসদ কুনাল ঘোষ। তিনি আশ্বাস দেন, পূজার ওই টিউমারের অপারেশন করা হোক, তাতে যা খরচ হয় সবটা তিনি দেবেন।

বাবা মা'র সাথে হাসপাতালের বিছানায় (নিজস্ব চিত্র)
বাবা মা’র সাথে হাসপাতালের বিছানায় (নিজস্ব চিত্র)

সেইমতো পূজাকে ভর্তি করা হয় কলকাতার জে.এন.রায় হাসপাতালে। ১৪ দিন ভর্তি ১০ জুন, রবিবার পূজার অপারেশন সম্পন্ন হয়। বাদ দেওয়া হয় সম্পূর্ণ টিউমারটি। ডাঃ শুভাশিস গুহ ও ডাঃ পরেশ ব্যানার্জীর তত্ত্বাবধানে পুরো বিষয়টি সামলানো হয়। সকাল ৯:৪০ থেকে দুপুর ১ টা অবধি চলা এই দীর্ঘ অপারেশন আবার বাবা-মা’র কোলে ফিরিয়ে দেয় তাঁদের ছোট্ট প্রাণপাখিকে।

রমেশ বাবু জানান, ‘কলকাতাতে এসেও আমরা ৮ টা হাসপাতালে ঘুরেছি। ডাক্তাররা দেখেই ফিরিয়ে দিয়েছেন, বলেছেন তাঁরা পারবেন না এই অপারেশন করতে। কিন্তু এই ডাক্তার শুধু একবার পূজার টিউমারটা একবার হাত দিয়ে ছুঁয়েই বলে দিলেন যে, তিনিই করবেন এই অপারেশন।’ তবে ডাঃ শুভাশিস গুহ জানিয়েছেন, এত বছর ধরে থাকা এই টিউমার একটু একটু করে বাচ্ছার ভেনের মাধ্যমে বেশ কিছু নার্ভে প্রবেশ করে গিয়েছে, যেগুলোর জন্য ওর শরীরের কিছু অংশ, যেমন ঠোঁট একটু বেঁকে যেতে পারে। কিন্তু তাতে কোন সমস্যার কিছু নেই, সেটাও সেরে যাবে, তবে এক্ষেত্রে তিনি ধৈর্য ধরতে বলেছেন পূজার বাবা-মা’কে।

ADVERTISEMENT
ADVERTISEMENT

পূজা বাড়ির ছোট মেয়ে, তার সাত বছরের দিদি ফালাকাটার বাড়িতে তার জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষারত। এদিনের এই সফল অস্ত্রোপচার একরত্তি শিশুকন্যা পূজাকে তাঁর দিদি, ঠাকুমা তথা বাবা,মায়ের কোলে আবার খেলার জন্য প্রস্তুত করলো।

ADVERTISEMENT
ADVERTISEMENT

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *