পশ্চিমবাংলায় রাজ্য সভাপতিই সব : দিলীপ ঘোষ

জেলায় কালা দিবস পালন বিজেপি র
SHARES
Share on FacebookShareTweet on TwitterTweet

সুরজিৎ খাঁ : এক মাস অতিক্রান্ত হতে চলেছে মুকুলের বিজেপিতে যোগদান। তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদানের এতদিন পরেও পদহীন ভাবে রয়েছেন একদা তৃণমূলের সেকেন্ড ম্যান ইন কম্যান্ড। বিভিন্ন কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করতে দেখা গেলেও শুধুমাত্র একজন সদস্য হিসাবেই গেরুয়া শিবিরে তাঁর স্থান ।

বিজেপির সভামঞ্চ থেকে তৃণমূলের শীর্ষ নেতরত্ব থেকে শুরু করে অন্যান্য নেতামন্ত্রীদেরও কটাক্ষ করেছেন তিনি। তবুও তাঁর যথাযথ পদ নিয়ে বিজেপি অন্তরমহলে জল্পনার ঘোর যেন কাটছেই না।

প্রশাসন অস্তিত্বহীন , তাই রাজ্যের এই হাল: দিলীপ
দিলীপ ঘোষ

একাংশের মতে মুকুল রায়ের রাজনৈতিক দক্ষতা ও অভিজ্ঞতা এগিয়ে রেখেছে তাঁকে। তবে বলা বাহুল্য যে সারদা ও নারদ কাণ্ডের অভিযোগ থেকে তিনি এখনো মুক্তি পাননি।

পদ নিয়ে প্রশ্ন করতে দিলীপ রায় বলেন,” মুকুল রায়কে এখনো কোনো পদ দেওয়া হয়নি । তবে এবিষয়ে আমরা ভাবছি ,কেন্দ্রীয় নেতারাও ভাবছেন। আপাতত তাঁর যোগ্যতাকে আমরা বিভিন্ন নির্বাচনে কাজে লাগাচ্ছি। সংগঠনের কাজেও উনি ঘুরেছেন। যথা সময়ে তাঁকে যোগ্য জায়গা দেওয়া হবে।”

এছাড়াও বলেন , ”পশ্চিমবাংলায় রাজ্য সভাপতিই হেড। এটা আমাদের সংবিধান অনুযায়ী চলে। মুকুল রায় অনেক বড় নেতা। তাঁকে ঠিক সময় পদ দেওয়া হবে। আপাতত পার্টির মধ্যে তিনি একজন কর্মী হিসেবে কাজ করছেন। স্বাভাবিকভাবেই রাজ্যে কাজ করলে তিনি রাজ্য সভাপতির অধীনে কাজ করবেন কারণ তিনি পার্টির একজন কর্মী।” 

জলপাইগুড়িতে বিগত দু’টি নির্বাচনে দলের উল্লেখযোগ্য ভালো ফল ও কোচবিহারে দলের বৃদ্ধির জেরে এবার উত্তরবঙ্গে রাশ শক্ত করতে বৈঠক করতে চলেছেন তাঁরা । দিল্লির কিছু নেতাও সামিল হচ্ছেন এই বৈঠকে এমনটাই জানা গেছে।

ADVERTISEMENT
ADVERTISEMENT

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *