হাসপাতালের জানলা ভেঙে ফেরার বাংলাদেশি বন্দী

SHARES
Share on FacebookShareTweet on TwitterTweet

সুরজিৎ খাঁ : মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের সেলে বন্দী থাকা বাংলাদেশি যুবক জানলা ভেঙে পালালো। সোমবার ভোর রাতে পালিয়েছে বলে অনুমান দায়িত্বে থাকা নিরাপত্তা রক্ষীদের। যদিও এবিষয়ে পুলিশের কোনোরকম পত্রিক্রিয়া পাওয়া যাইনি।

পুলিশ সূত্রে খবর, পলাতক বন্দীর নাম সফিকুল ইসলাম। বয়স ৩৪। বাংলাদেশের নওগাঁ জেলার পাচক কামারডাঙা গ্রামে বাড়ি বলে জানা যায়। তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ , প্রায়ই সে এদেশে ঢুকে ভারতীয় দুষ্কৃতীদের সঙ্গে চুরি, ছিনতাই, ডাকাতির মতো দুষ্কর্ম করে। এসব কারণে রাজ্যের বিভিন্ন থানায় তার বিরুদ্ধে মামলা রয়েছে। সম্প্রতি সে ধরা পড়ে কালিয়াচক থানার পুলিশের হাতে । চলতি মাসের ৮ তারিখ মামলার কারণে তাকে হাওড়া নিয়ে যাওয়ার দরুন ট্রেনেই অসুস্থবোধ করায় তাকে ফের মালদা ফিরিয়ে আনা হয়। এবং ৯ তারিখ তাকে ভর্তি করা হয় মালদা মেডিকেল কলেজে। তাঁর চিকিৎসা চলছিল মেডিকেলের মেল মেডিসিন ওয়ার্ডের দোতলায় বন্দীদের সেলেই । ভোরে সেলের নিরাপত্তারক্ষীরা চোখে পড়ে সেখানে সফিকুল নেই। তখনই তাঁদের নজরে আসে, সেলের জানালার গ্রিল ভাঙা ও সেখান থেকে ঝুলছে দড়ি। মুহূর্তের মধ্যে সবাই বুঝে যায়, জানালা দিয়ে পালিয়েছে সফিকুল।

জযেসব বেশকিছু বিষয়ে প্রশ্ন উঠছে তার মধ্যে অন্যতম কারণ হলো, সেলের মধ্যে সফিকুল দড়ি পেল কীভাবে ? সেলে থাকা অন্য বন্দীরা কেন জানালা ভাঙার শব্দ পেল না ? নিরাপত্তারক্ষীরাই বা কেন সেই শব্দ পেলেন না ? সেসবের উত্তর এখনও পাওয়া যায়নি। আপাতত ওই সেলের কাছে যেতে দেওয়া হচ্ছে না কাউকে। ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশকর্তারা।

ADVERTISEMENT
ADVERTISEMENT

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *