রক্তবদলেই অবনতি শুরু,ভুল রক্ত দেওয়ার মাশুল গুনলো রুগি

SHARES
Share on FacebookShareTweet on TwitterTweet

শ্রেয়সী মিস্ত্রী

কলকাতায় এর আগেও নানা হসপিটালে বহুবার বহু রুগী ভিন্ন সমস্যার সম্মুখীন হয়েছে।এমনকি অনেক ক্ষেত্রেই হয়েছে জীবন ঝুঁকি।এবার ও সে পন্থাই অনুসরণ করেছে সল্টলেকের বেসরকারি হাসপাতাল কলম্বিয়া এশিয়া। যার জেরে রোগি এখন ভেন্টিলেশনে।

ছবি সৌজন্যে: গুগল
ছবি সৌজন্যে: গুগল

পেটে ব্যাথার চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে যান রাজারহাটের বাসিন্দা বৈশাখী সাহা।ওই হাস্পাতালের গ্যাসট্রোএনটেরোলজিস্ট  স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞকে দেখানোর পরামর্শ দেন। 5 জুন ওই বেসরকারি হাসপাতালে গাইনোকোলজিস্টকে দেখান বৈশাখী। বিভিন্ন রকম পরীক্ষার পর দ্রুত অস্ত্রোপচারের পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞ। ওইদিন রাতেই অপারেশন হয়। চিকিত্‍সক বলেম ,অপারেশন সফল।খুব শীঘ্রই রোগী বাড়ি ফিরবেন।এত পর্যন্ত সব ঠিকই ছিল।ঝামেলার সূত্রপাত হয় রক্ত দেওয়া নিয়ে।A+রক্তের গ্রুপের রোগিকে দেওয়া হয় AB+ রক্ত। আর তারপরেই বৈশাখীর সাংঘাতিক অবনতি ঘটতে থাকে।

রোগির স্বামী অভিজিৎ সাহা অভিযোগ করেছেন, “বৈশাখীর প্রস্রবাবের সঙ্গে রক্ত বেড়তে শুরু করে। প্রথমদিকে হাসপাতালের তরফে এই বিষয়ে কোন পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। বেলা বাডা়র সঙ্গে সঙ্গে আরও খারাপ হতে থাকে বৈশাখীর শারীরিক অবস্থা। তখন তাঁকে আইসিইউতে রাখা হয়। রক্তে অক্সিজেনের মাত্রা অনেক কমে যাওয়ায় ভেন্টিলেশনে রাখা হয়েছিল তাঁকে।”

ADVERTISEMENT
ADVERTISEMENT

হাসপাতালের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে বিধাননগর থানায়।এছাড়াও এই বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রী এবং স্বাস্থ্যসচিবকেও চিঠি দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন বৈশাখীর স্বামী। তিনি বলেন,”ভুল রক্তের কথা স্বীকার করেছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। কিন্তু ভারপ্রাপ্ত চিকিত্সকেরা এই বিষয়ে মুখ খুলতে নারাজ”।

ADVERTISEMENT
ADVERTISEMENT

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *