উওর ২৪ পরগণার বারাসাতে মা ও মেয়ের রহস্যমৃত্যু,অন্ধাকারে পুলিশ

SHARES
Share on FacebookShareTweet on TwitterTweet

তিথি রায় চৌধুরী

উওর ২৪ পরগণার বারাসাতের সুবর্ণপত্র এলাকায় মা ও মেয়ের অস্বাভাবিক মৃত্যু ঘিরে রহস্য দানা বেধেছে।এমনকি এই মৃত্যুর সাথে সাথে মেয়েটির জামাই আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে।একই বাড়ির তিনজনের এই রকম অবস্থা হওয়াতে আরও ঘনীভূত হয়েছে রহস্য।যার কিনারা করতে পুলিশ কার্যত অন্ধকারে রয়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছে,বারাসাতের সুবর্ণপত্র এলাকার একটি বাড়িতে।রবিবার গভীর রাতে ওই বাড়ি থেকে গৃহবধূর বিকট চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা গিয়ে দেখেন যে,মা ও মেয়ে সংজ্ঞাহীন অবস্থায় পড়ে আছে,একটু দূরে অবিন্যস্ত ভাবে পড়ে জামাই সানি মল্লিকের দেহ।ঘটনার পর প্রতিবেশীরা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ এসে মা ও মেয়েকে বারাসাত হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাদের দুজনকে মৃত বলে ঘোষণা করে।এবং জামাই কে আশঙ্কাজনক অবস্থায় বারাসাত সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

ADVERTISEMENT
ADVERTISEMENT

পরিবার সূত্রে দাবি করা হয়,কিছুদিন আগে ই মেয়ে পায়েলের সাথে জামাই সানি মল্লিকের বিয়ে হয়।২ দিন আগে স্বামী স্ত্রী সাথে ঝগড়ার দরুণ মেয়ে বাপের বাড়িতে চলে আসে।তার ঠিক ২ দিন পর ও জামাই ও মেয়েকে নিয়ে শ্বশুরবাড়িতে আসে বলে জানা যায়।ওই দিন গভীর রাতে ঘটনাটি ঘটেছে বলে, জামাই সানি মল্লিকের দিকেও সন্দেহের আঙুল উঠেছে।পুলিশ ঘটনাটির পুঙ্ঘানুপুঙ্ঘ তদন্ত করে, রহস্যের কিনারা করার আশ্বাস দিয়েছে।মৃতদেহগুলিকে ময়নাতদন্তের জন্য পুলিশ মর্গে পাঠানো হয়েছে।

ADVERTISEMENT
ADVERTISEMENT

সূত্রের খবর থেকে জানা যায়,বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়েই মা ও মেয়ের মৃত্যু হয়েছে,তবে তাদের কি ইচ্ছা করেই বিদ্যুৎ সংযোগী তার দিয়েই মারার চেষ্টা করা হচ্ছিল কিনা তা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে।এই বিদ্যুৎসংযোগী তার যুক্ত করতে গিয়েই কি জামাই আহত হয়েছে কি না?তা নিয়েও তদন্ত করছে পুলিশ।পুরো ঘটনাটির কিনারা করতে পুলিশ ফরেন্সিক বিশেষজ্ঞদেরকেও ডেকে পাঠিয়েছে।তারা এসে ঘটনাস্থল ও তার পাশ্ববর্তী জায়গার নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষাগারে পাঠানোর ব্যবস্থা করে।এমনকি পুলিশ কুকুর এনেও সারা বাড়ির তল্লাশি চালানো হয়।পুরো ঘটনার পর্যাপ্ত তদন্ত করে দোষীকে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়ার আশ্বাস দেয় পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *