ঘরের মাটিতে অভিনব জয় মোহনবাগানের

ঘরের মাটিতে অভিনব জয় মোহনবাগানের
SHARES
Share on FacebookShareTweet on TwitterTweet

ওয়েব ডেস্ক: গ্যালারিতে প্রায় ৬৫ হাজার দর্শকের ভিড়। টান টান উত্তেজনা নিয়ে দলকে জিততে দেখার আশায় চোখগুলো মেলে রয়েছেন সকলেই। এরই মাঝে গোল সেভ থেকে শুরু করে গোল দিয়ে ইস্টবেঙ্গলকে হারিয়ে মরশুমের প্রথম ডার্বি জিতে নিলেন কিংসলে এজে।

ম্যাচের আগ্ ড্রেসিংরুমের একদিকে সোনি নর্ডি, ক্রোমা, ডিপান্ডার মতো স্ট্রাইকার। অন্যদিকে উইলিস প্লাজা, চার্লসদের মতো তারকার ছড়াছড়ি। কিন্তু এটা যে ডার্বি যেখানে শেষ গোলটা না হওয়া অবধি ম্যাচের সেরা কে হতে চলেছে আগে থেকে তা বোঝা প্রায় অসম্ভব। দুর্দান্ত সব তারকার মাঝ থেকেই ম্যাচের সেরা হয়ে উঠে এলেন কিংসলে এজে।

এদিকে প্রথম থেকেই কোনও কোচই ঝুঁকি নিতে চাননি। ম্যাচের ৩০ মিনিটে গোল করার সুযোগ এসেছিল ইস্টবেঙ্গলের সামনে। তবে চুলোভার সেন্টারে হেড করতে ব্যর্থ হন উইলিস প্লাজা। সোনির কর্নারে সেবারও হেড করেন কিংসলে। কিন্তু ইস্টবেঙ্গল গোলকিপার ব্যারেটোর হাতে লেগে ফিরে যায় বল। ম্যাচের ৩৮ মিনিটে কর্নার নিতে যান সোনি নর্ডি। নিখুঁত ক্রস থেকে হেডে গোল করেএগিয়ে নিয়ে যান মোহনবাগানকে।

ম্যাচের ৩৯ মিনিটে সোনি–কিংসলের যুগলবন্দিতেই এল জয়ের গোল। প্রথমার্ধের ইনজুরি টাইমে ব্যবধান বাড়াতে পারতেন ক্রোমা। কিন্তু বাঁচিয়ে দেন ব্যারেটো। দ্বিতীয়ার্ধে চাপ ক্রমশ বাড়তে থাকে। তবে আক্রমণের ঝাঁঝ তুলেও ব্যর্থ লাল-হলুদ। মরশুমের প্রথম ডার্বি জিতে আই লিগে তিন পয়েন্ট হাসিল মোহনবাগানের।

এবার আই লিগ জয়ের পর এফসি টিম থেকে অনেক ফুটবলারকেই এনেছে দুই প্রধানই। কিংসলে আইজল থেকে একটি বড় অঙ্কের চুক্তিতে সবুজ-মেরুনে যোগ দেয়। খালিদ জামিলের পুরনো ছাত্র কিংসলে।পুরানো ছাত্রের হাতেই প্রথম ডার্বিতে হারতে হল খালিদকে।নায়ক হলেন কিংসলে।

ম্যাচ শেষে অভিনব জয়ের পর গর্বের সঙ্গে টিমবাসে ওঠার আগের মুহর্তে ছেঁকে ধরল সমর্থকরা। অবশেষে ফের হারাবেন ইস্টবেঙ্গলকে হারানোর কথা দিয়ে বাসে উঠলেন ম্যাচ নায়ক।

ADVERTISEMENT
ADVERTISEMENT

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *