মঞ্চস্থ হল “লাইক কমেন্ট শেয়ার”

মঞ্চস্থ হল "লাইক কমেন্ট শেয়ার"
SHARES
Share on FacebookShareTweet on TwitterTweet

বৈশাখী পাল : মঙ্গলবার ফাইন আর্টস একাডেমী তে মঞ্চস্থ হল ঐহ্যিক সৃষ্টি সুখের উল্লাসী নাটক “লাইক কমেন্ট শেয়ার”।

মঞ্চস্থ হল "লাইক কমেন্ট শেয়ার"
মঞ্চস্থ হল “লাইক কমেন্ট শেয়ার”

লাইক , কমেন্ট ,শেয়ার শব্দ গুলি শুনলেই স্যোশাল মিডিয়ার কথা মনে পড়ে। সেই সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতেই কলেজের পুরোনো বন্ধুদের বেশ কিছু বছর পরে জমায়েত হওয়া এবং আড্ডায় মেতে ওঠা কে কেন্দ্র করেই গড়ে উঠেছে নাটক। এক প্রবাসী বন্ধুর কোলকাতার বাড়িতে জমে ওঠে গল্প, আড্ডা, বিতর্ক। অতীত-বর্তমানের সংঘাতে বন্ধুত্বের প্রলেপ। পুরোনো প্রেমও যেন আবার রূপ ফিরে পেতে চায়। স্মৃতি বেদনার হলেও সুখের তারে বাঁধা পড়তে চায়। আড্ডার তাল কেটে যায় গৃহকর্ত্রীর প্রবাসী সদ্যযুবক ছেলের বিধ্বস্ত অবস্থায় বাড়িতে ফেরায়। কঠিন নিস্তরঙ্গ সময় পার হয়ে যায়। জানা যায় ছেলেটি এক মারাত্মক অসামাজিক কাজে নিজেকে জড়িয়ে ফেলেছে। ছেলেকে আড়াল না করে তাকে আইনের হাতে তুলে দিয়ে তীব্র মানসিক দৃঢ়তা নিয়ে মা হিসেবে প্রবাসী মহিলা তার সামাজিক দায়বদ্ধতার পরিচয় দেন ও পরবর্তী পর্যায়ে নারীসত্তার পূর্ণাঙ্গ রূপ দেন।

নাটকের মূল চরিত্র (শ্রীময়ী মজুমদার) সেবন্তীর ভুমিকায় অসামান্য। এছাড়াও কাকলি ঘোষ (টুম্পা), বিভাস ঘোষ (অবিনাশ), অরিন্দম ঘোষ (ইন্দ্রজিৎ), দেবব্রত চক্রবর্তী (সুনন্দ), স্বাতী রায় (অনিন্দিতা), জয়িতা চৌধুরী (মনীষা), অরিন্দম রায় (পলাশ), সৌভিক গাঙ্গুলী (বাবিন) প্রত্যেকেই নিজেদের চরিত্রে অসামান্য।

নাটকটির মঞ্চ ও নির্দেশনায় ছিলেন অভিনেত্রী তথা নাট্যকার স্বাতী রায়। তাঁর মতে, এই কঠিন সময়ে বৃহত্তর সমাজের প্রতি সাম্যের ধর্ম পালন করাই হল ‘মানবিকতা’।

সর্বোপরি আমাদের চারপাশে ধর্ষণের মতো আরও বিভিন্ন অসামাজিক কাজকর্ম দিন দিন বেড়েই চলেছে আর আমরাও এই বিষয়গুলির সাথে অভ্যস্ত হয়ে পড়েছি। যতক্ষণ পর্যন্ত না কোনো অমানবিক ঘটনা আমাদের ব্যক্তিগত জীবনে ঘটছে ততক্ষন পর্যন্ত আমরা অন্যের জীবনে ঘটে যাওয়া কোনো দুর্ঘটনাকে ভ্রুক্ষেপ করি না। কিন্তু নিজের রক্তের সম্পর্ককে প্রশ্রয় না দিয়ে বরং ছেলেকে ধর্ষক হিসেবে আইনের হাতে তুলে দিয়ে প্রবাসী মা সমাজের চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিলেন যে ক্রাইম ইজ ক্রাইম, সেখানে কারও ক্ষমা নেই। আর এভাবেই যদি সমাজের প্রতিটা মা প্রতিটা মানুষ নিজেদের বিবেক বোধকে জাগ্রত করে অন্যায়ের প্রতিবাদ জানান ও অপরাধীকে শাস্তির দোরগোড়ায় পৌছে দেন তাহলে বোধহয় অনেকাংশেই সমাজের বুক থেকে অসামাজিক কাজকর্মগুলিকে দমিয়ে ফেলা সম্ভব হবে। এই চরম বার্তাটি দিতেই এই “লাইক কমেন্ট শেয়ার” নাটকটির উপস্থাপন তা আর আলাদা করে বলার অপেক্ষা রাখে না।

ADVERTISEMENT
ADVERTISEMENT
ADVERTISEMENT
ADVERTISEMENT

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *