অমানবিকতার নজির হাওড়ার কুলগাছিয়া স্টেশনে

SHARES
Share on FacebookShareTweet on TwitterTweet

প্রেমাশ্রীতা দাস : নয়া প্রযুক্তির নয়া নয়া আবিষ্কার আর সেগুলো ঘিরেই ব্যস্ত মানুষ। সেলফিও তেমনই এক আবিষ্কার। তবে মৃত্যুমুখী মানুষের চিকিৎসার ব্যবস্থা ছেড়ে তাকে নিয়ে সেলফি কী একটু বেশীই অমানবিক নয়?

তেমনই অমানবিক ঘটনার সাক্ষী রইল হাওড়ার কুলগাছিয়া স্টেশন। বৃহস্পতিবার সকালে কুলগাছিয়া ষ্টেশনে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায় এক যুবককে। ট্রেনের ধাক্কায় আহত ওই যুবক প্রায় সাড়ে তিন ঘন্টা স্টেশনে পড়ে থাকলেও চিকিৎসা তো দূর নিত্যযাত্রীরা কেউ ফিরেও তাকাননি।প্রতক্ষ্যদর্শীদের দাবী কেউ কেউ আবার ওই মৃত ব্যক্তিটির সাথে সেলফিও তোলে।

kgy

সাড়ে তিন ঘন্টা পড়ে থাকার পর বেলা সাড়ে দশটা নাগাদ কয়েকজন ছাত্র-ছাত্রী ষ্টেশনে এসে পৌঁছালে তাঁরাই ঐ যুবককে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে যুবকটিকে উলুবেড়িয়া মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যান। হাসপাতালে পৌঁছালে চিকিৎসকরা জানান,অত্যন্ত রক্ত ক্ষরণের ফলে যুবকটির অবস্থা আশঙ্কাজনক।

বিষয়টি প্রকাশ্যে আসতেই দক্ষিণ -পূর্ব রেলের তরফ থেকে প্রশ্ন করা হয় যে, ওই যুবক প্ল্যাটফর্মে পরে থাকাকালীন রেলের কোনো কর্মীকে কেন দেখা যায়নি। এছাড়া নিয়মমাফিক, স্টেশনে কর্মী সংখ্যা কম থাকলে গার্ড এবং বুকিং ক্লার্ক কখনই তাঁদের দায়িত্ব ছেড়ে কোথাও যেতে পারেনা। তবে কেন এমন ঘটনা ঘটল সে বিষয়ে খতিয়ে দেখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে ।

ADVERTISEMENT
ADVERTISEMENT

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *