স্ত্রী ও মেয়েকে অন্যত্র বিক্রি করে দেওয়ার অভিযোগ উঠল স্বামীর বিরুদ্ধে

SHARES
Share on FacebookShareTweet on TwitterTweet

তিথি রায় চৌধুরী

জামাইয়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করলেন শ্বাশুড়ি।শ্বাশুড়ি লক্ষী দাস জামাইয়ের বিরুদ্ধে দফায় দফায় জোর খাটিয়ে টাকা চাওয়া ও টাকা না দিতে পারার ফলে মেয়েও নাতনিকে অন্যত্র বিক্রি করে দেওয়ায় অভিযোগে তাকে অভিযুক্ত করেন।তাছাড়া, নিজের স্ত্রীকে দেহ ব্যবসায় নামানোর ও অভিযোগ রয়েছে, তার স্বামীর বিরুদ্ধে।

ঘটনাটি ঘটেছে,বর্ধমানের লক্ষীপুর মাঠ এলাকায়।২০১২ সালে রাজস্থানের হনুমানগড়ের বাসিন্দা পাপ্পু সিং এর সাথে বিয়ে হয় বর্ধমানের দিপালী দাসের।বর্ধমানের মাঠ এলাকায় এক আত্মীয়ের বাড়িতেই ছিল ওই পাপ্পু সিং।পেশায় সে সোনা রূপোর কাজ করে।সেখান থেকেই সম্বন্ধ করেই তাদের বিয়ে দেওয়া হয়।

ADVERTISEMENT
ADVERTISEMENT

বিয়ের পর থেকে ই স্ত্রীকে অত্যাচার, মারধর,এমনকি স্ত্রী কে দেহ ব্যবসায় নামানোর ও অভিযোগ ওঠে, তার বিরুদ্ধে।তার সাথে সাথে চলে স্ত্রী এর বাপেরবাড়ি থেকে টাকা চাওয়ার জন্য চাপ।টাকা না আনতে পারার ফলে চলে রাজস্থানে কাজের জায়গায় জোর করে নিয়ে যাবার জন্য চাপ।তাও সুখে সংসারের কথা ভেবে স্বামীর সাথে রাজস্থানে যেতে রাজি হয় দিপালী দাস।সেখানে গিয়েও চলতে থাকে অত্যাচার।এর কিছুদিন পর দিপালী দেবী একটি কন্যাসন্তানের জন্ম দেন।এরপর থেকেই তাদের বিক্রি করে মোটা টাকা লাভের আশা করে,তার স্বামী।

ADVERTISEMENT
ADVERTISEMENT

এদিকে,নিজের মেয়ে ও নাতনির সাথে কোনো রকম যোগাযোগ করতে না পেরে অবশেষে জেলা পুলিশ সুপারের কাছে অভিযোগ জানায় শ্বাশুড়ী লক্ষী দাস।তাতে কোনো ফল না মেলায় তিনি সিজিএমে মামলা করেন।সেখান থেকে বর্ধমান থানায় মামলা রুজু করতে নির্দেশ দেওয়া হলে বর্ধমান থানার পুলিশ ওই অভিযুক্তের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করে।লক্ষীদেবীর নিখোঁজ মেয়ে ও নাতনির খোজ চালাচ্ছে পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *