ঝাঁজহীন লালবাজার অভিযান, সফল দাবী বিজেপি-র

SHARES
Share on FacebookShareTweet on TwitterTweet

নিজস্ব সংবাদদাতা : হবার ছিল কত কি কিন্তু হলো কোথায়? এতো সহজে যে সবটা থিতিয়ে যাবে তা বোধ হয় খোদ পুলিশও আশা করেননি। অন্তত পুলিশকর্মীর সংখ্যাটা দেখে তেমনটাই মনে হলো।

শুক্রবার উত্তর ২৪ পরগণার কাঁকিনাড়ার জনসভায় গিয়ে আক্রান্ত হন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দীলিপ ঘোষ। দীলিপ ঘোষ সহ বেশ কয়েকজন কর্মীও আক্রান্ত হন। অভিযোগ ভাটপাড়ার বিধায়ক অর্জুন সিংয়ের নেতৃত্বে তৃণমূলের গুন্ডা বাহিনী হামলা চালায় বিজেপির ওপর।

ঝাঁজহীন লালবাজার অভিযান, সফল দাবী বিজেপি-র
আন্দোলনরত বিজেপি কর্মীরা

ভাটপাড়া নতুন নয়, এর আগেও দীলিপ ঘোষের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। বিজেপির অভিযোগ, পুলিশ প্রশাসন নির্বিকার। এর প্রতিবাদেই শনিবার লালবাজার অভিযানের ডাক দেয় বিজেপি। রাজ্য বিজেপি ভবন থেকে লালবাজার যাওয়ার কথা থাকলেও বউবাজারের কাছে পুলিশ তাদের আটকায়। পুলিশ গার্ডওয়েল করে মিছিল আটকায়।
বিজেপি কর্মীরা ওখানেই রাস্তায় বসে বিক্ষোভ স্লোগান দিতে থাকে।

বিজেপির শান্তিপূর্ণ মিছিল আচমকাই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। মিছিলে বিজেপি কর্মীরা মুখ্যমন্ত্রীর কুশপুতুল নিয়ে বিক্ষোভ দেখাচ্ছিল। ধর্ণা চলাকালীন কুশপুতুলটি ছিনিয়ে নেয় পুলিশ। কুশপুতুল নিয়ে পুলিশ-বিক্ষোভকারীর মধ্যে ধস্তাধস্তি শুরু হলে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে পরিস্থিতি। গার্ড ওয়েলে উঠে স্লোগান দিতে থাকে বিজেপি সমর্থকরা। যদিও কিছুক্ষণের মধ্যেই পিছু হটে তারা।

বিজেপির লালবাজার অভিযান এক কথায় মুখ থুবড়ে পড়লো। যদিও বিজেপি ভাইস প্রেসিডেন্ট সায়ন্তন বসু তা মানতে চাননি। তাঁর কথায়, আজ ধর্মীয় অনুষ্ঠান থাকায় পুলিশ তাদের অনুরোধ করে তাই তারা আজ থেমে গেলেন। সঙ্গে যোগ করেন একটা কুশপুতুল নিয়েছে, আরও দশটা পুড়বে। পুলিশকে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলে, ‘দেখি কটা চুরি করে ?’ বিজেপি রাজ্য দপ্তরের সামনে কুশপুতুল পোড়াবে তারা। সেটা ‘বাঁশ বনে শিয়াল রাজা’ হয়ে গেল নাকি?

কুশপুতুলটি নিয়ে নেওয়ায় সরাসরি পুলিশকে চোর বলে আক্রমণ করে বিজেপি নেতৃত্ব। মুখ্যমন্ত্রীর পাশাপাশি পুলিশকেও জবাব দিতে হবে বলে দাবি ওঠে। বিদ্রুপ করে বলা হয়, দরকার হলে পুলিশ কমিশনারের বাড়ির ছাদে কুশপুতুল পুড়বে। কলকাতার পাশাপাশি ব্যারাকপুর অঞ্চলেও বিক্ষোভ প্রদর্শন করছে বিজেপি।

ADVERTISEMENT
ADVERTISEMENT

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *