ব্লু-১৩ দায়ী আলু ধসা রোগের দাবী বাঙালী গবেষকের

ব্লু-১৩ দায়ী আলু ধসা রোগের দাবী বাঙালী গবেষকের
SHARES
Share on FacebookShareTweet on TwitterTweet

খাস খবর ওয়েব ডেস্ক : বাঙালীর রোজের মেনু আলু ছাড়া বোধয় অপূর্ন। কিন্তু অনেকেরই অজানা আলু চাষের সম্পর্কে। আলু চাষের সময় বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই নাভি ধসা (লেট ব্লাইট)রোগের কথা বলা হয়।এই ধসা রোগের জন্য দায়ী এক বিদেশী ছত্রাক।বাঙালী এক গবেষক ড: সঞ্জয় গুহ রায় এমনটাই জানিয়েছেন তাঁর গবেষণার মাধ্যমে।সম্প্রতি তা প্রকাশিত হয়েছে জার্নাল নেচার প্রকাশনার সায়েন্টেফিক রিপোর্টসে।

ব্লু-১৩ দায়ী আলু ধসা রোগের দাবী বাঙালী গবেষকের
ডঃ সঞ্জয় গুহ

পশ্চিমবঙ্গ রাষ্ট্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্যোগে এবং ‘সি এস আই আর’নতুন দিল্লীর আর্থিক সহায়তায় একটি গবেষণা করা হয়। এই গবেষণারর নেতৃত্ব দিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গ রাষ্ট্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভিদ বিদ্যার বিভাগীয় প্রধান ড: সঞ্জয় গুহরায় এবং গবেষনা পত্রটি প্রকাশিত হয় রিসার্চ স্কলার তন্ময় দে র নামে।।এছাড়াও গবেষকদলে ছিলেন আইয়াইসিবি কলকাতার সুচেতা ত্রিপাঠী, আমেরিকারর কর্নেল ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক উইলিয়াম ফ্রাই,নর্থ ক্যারোলিনা স্টেট ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক জিন রিস্তাইনো এবং ব্রিটেনের জেমস হুটন ইন্সটিটিউটের ডেভিড কুক প্রমুখ।

এই গবেষণাতে বলা হয় সর্বপ্রথম ইউরোপ ও পরে তা ২০০৮ সালে দক্ষিণ ভারতে দেখা যায়।২০১৩-২০১৪ সালের মধ্যে তা মমহামারীর আকার ধারণ করে পশ্চিমবঙ্গ তথা পূর্ব ভারতে।শুধু আলু চাষ নয় আলুর পাশাপাশি টমেটো চাষেরও প্রভূত ক্ষতিসাধন করে এই নাবি ধসা রোগ।আলু চাষে পশ্চিমবঙ্গের স্থান দ্বিতীয় ভারতে।এরাজ্যে যত ধরণের আলু চাষ হয়ে থাকে প্রত্যেকটিতেই ব্লু-১৩ ইনফেকশন করতে সক্ষম।ড: সঞ্জয় গুহ রায় জানান, ” যে প্রায় বছর তিন আগে আলুর নাবি ধসা রোগে কৃষকরা সর্বস্বান্ত হওয়ার পরে হুগলী ও বাঁকুড়ার বিস্তীর্ণ এলাকায় এই ব্যাপারে বিষদ তথ্য সংগ্রহে নামা হয়েছিল।”

একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো ভৌগলিক অবস্থানের ওপর ভিত্তি করে এই ছত্রাকের উপস্থিতির চারিত্রিক ও জিনগত বৈশিষ্ট্য আলাদা
সেক্ষেত্রে নির্দিষ্ট প্রতিরোধী উপায় ব্যাবহারে সাফল্য পাওয়া সম্ভব নয়। সঠিক ফল পাওয়ার জন্য বিভিন্ন ভৌগলিক অবস্থানের জন্য আলাদা আলাদা পদ্ধতি গ্রহন করতে হবে।এমনই কিছু উপায় তারা আরও একটি গবেষণার দ্বারা পেয়েছেন। যেটি খুব শীঘ্রই গবেষণা পত্রে প্রকাশিত হবে বলে জানা গেছে।

ADVERTISEMENT
ADVERTISEMENT

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *