পুরোপুরি বন্ধ হতে চলেছে এয়ারসেল

পুরোপুরি বন্ধ হতে চলেছে এয়ারসেল
SHARES
Share on FacebookShareTweet on TwitterTweet

ওয়েব ডেস্ক: জিও-র ফ্রি কিংবা স্বল্প মূল্যের পরিষেবার জেরে হারিয়ে গেছে একের পর এক টেলিকম সংস্থাগুলি।
বাজার ধরে রাখতে কোনো কোনো সার্ভিস প্রোভাইডার স্বল্প মূল্যে পরিষেবা দিতে শুরু করলেও, মুকেশ আম্বানির অঢেল পুঁজির সামনে রীতিমত খড়কুটোর মত উড়ে গেল দেশের একাধিক ছোট টেলিকম সংস্থাগুলি।

পুরোপুরি বন্ধ হতে চলেছে এয়ারসেল
পুরোপুরি বন্ধ হতে চলেছে এয়ারসেল

প্রসঙ্গত, টাটা ডোকোমো আগেই নিজেদের ব্যবসা একেবারে জলের দরে এয়ারটেলের হাতে তুলে দিয়েছিল। এর পর বিদেশী সংস্থা ইউনিনরও তাদের ব্যবসা প্রায় বিনামূল্যেই এয়ারটেলের হাতে দিয়ে দেয়। অন্যদিকে সিডিএমএ পরিষেবা প্রদানকারী এমটিএস আগেই তাদের ব্যবসা রিলায়েন্সের সাথে যুক্ত করেছে। এবার শেষ পর্যন্ত ছোট সংস্থা এয়ারসেলও নিজেদের ব্যবসা বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিল।

জানা গেছে, জিও আসার পর লাগাতার ক্ষতিতে চলছিল সংস্থা। এদের প্যারেন্ট কোম্পানি মালয়েশিয়ার সংস্থা ম্যাক্সিস কোম্পানিকে দাড় করানোর জন্য নতুন করে টাকা লগ্নি করার কথা ভাবলেও পরে তা বাতিল করে দেয়। সে কারণে কোম্পানিকে আর্থিক দেউলিয়া ঘোষণা করার জন্য সংশ্লিষ্ট বিভাগের কাছে আবেদনও জানানো হয়েছে। এর আগেও সংস্থার বোর্ড অফ ডিরেক্টরকে বাতিল করে দেওয়া হয়েছে।

শুধু তাই নয়, কোম্পানি বন্ধ হলে ঋণ প্রদানকারী ব্যাঙ্কগুলির প্রায় ১৫ হাজার কোটি টাকা ডুবতে পারে। তারই সাথে কর্মহীন হতে পারেন কয়েক হাজার কর্মী।

এয়ারসেল বন্ধ হলে দেশে বেঁচে থাকবে মাত্র চারটি বেসরকারি সংস্থা। যা ভোডাফোন এবং আইডিয়া এক হওয়ার পর মাত্র তিনে এসে দাঁড়াবে।

সূত্রের খবর, ইতিমধ্যেই কম গ্রাহক থাকা এলাকা থেকে বেস ট্রান্সরিসিভ খোলার কাজ শুরু করে দিয়েছে। যার ফলে সেই সমস্ত এলাকায় আর পরিষেবা পাচ্ছেন না গ্রাহকরা। ইন্টার কানেকশন চার্জ পরিশোধ না করায় আইডিয়ার নেটওয়ার্কে কোন কল যাচ্ছেনা। তবে, কোম্পানি এখনো দেউলিয়া ঘোষণা না হওয়ার ফলে তারা গ্রাহকদের নাম্বার পোর্ট করার আবেদনও জানাতে পারছে না।

ADVERTISEMENT
ADVERTISEMENT

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *