গুজরাতে উলটপুরাণ,পরিবর্তনের সম্ভাবনা প্রবল

গুজরাতে উলটপুরাণ,পরিবর্তনের সম্ভাবনা প্রবল
SHARES
Share on FacebookShareTweet on TwitterTweet

দীপন ঘোষাল: শাসক বিজেপির ‘প্রেস্টিজ স্টেট’ গুজরাত এখন ঘুম উড়িয়েছে অমিত শাহ,নরেন্দ্র মোদির। একতরফা বিজেপি হওয়া এখন শুধু থেমেই নয় বরং বইছে উল্টো দিকে। মাস তিনেক আগের গুজরাত ও এখনকার গুজরাটের বিস্তর ফারাক। রাহুল গান্ধীর হাসি চওড়া করে বিপদের পূর্বাভাস বিজেপি শিবিরের কাছে।

হাতে গোনা আর মাত্র কয়েকদিন,তারপরেই বিধসনসভা ভোট গুজরাতে। যার ফলাফলের উপর গুজরাত তো বটেই এমনকি দেশীয় রাজনীতিতেও নির্ভর করছে অনেক কিছু। এবং সর্বোপরি পরবর্তী লোকসভা নির্বাচনের যার প্রভাব পড়া অবশ্যম্ভাবী। গত মাস দুয়েক গুজরাট রাজনীতিতে ঘটেছে একাধিক উল্লেখযোগ্য ঘটনা। যার পরে কার্যত গদি বাচঁবে কিনা তা নিয়েই চিন্তা শাসক শিবিরে। সম্প্রতি পতিদার আন্দোলনের পর পটেল সম্প্রদায়ের ভোট একটা বড় ব্যবধান তৈরি করবে এটা নিয়ে নিশ্চিত প্রায় সব রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞই। এছাড়া নোটবাতিলের মতো বড় ইস্যুও প্রভাব ফেলছে গুজরাট ভোটে। বিরোধীদের আক্রমণের সুর চড়ানো আর রাহুল গান্ধীর সমগ্র গুজরাট জুড়ে প্রচারের পাশে বিজেপিকে খানিকটা নিষ্প্রভ দেখিয়েছে। অন্যদিকে বিজেপির ভোটব্যাংকে বড় অংশই ছিল শহরাঞ্চলের ব্যবসায়ীদের ভোট। কিন্তু জিএসটি চালুর পর ক্ষুদ্র মাঝারি ব্যবসায়ীদের একটা বড় অংশই শাসক বিজেপির প্রতি অসন্তুষ্ট। একাধিক আন্দোলন থেকে প্রায় পরিষ্কার যে এবার বিজেপি ব্যবসায়ী ভোটব্যাংকে থাবা বসতে চলেছে। এবং গ্রামীন ভোটব্যাংক বিজেপির তুলনায় কংগ্রেসের কিছুটা ভালো ফলে লড়াই যে আর একতরফা নাই তা নিয়ে নিশ্চিত প্রায় সকলেই। গুটিকয়েক বিজেপির ‘পকেট’ কেন্দ্র বাদ দিলে এবারের গুজরাট লড়াই হতে চলেছে সেয়ানে সেয়ানে। প্রধান বিরোধী কংগ্রেস যে ঠিক এক্কেবারে ঘাড়ে নিঃশাস ফেলছে সেই অশনি সংকেত অমিত শাহ, নরেন্দ্র মোদির এখন মূল চিন্তা।

পরিস্থিতি দ্রুত এতটাই পাল্টেছে যে গতবারের ১১৫ টি বিজেপির অসনকেও নিশ্চিত বলা যাচ্ছে না। মাস তিনেক আগেও রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মত অনুযায়ী বিজেপি এগিয়ে ছিল প্রায় ১৪০+ আসনে। কিন্তু বর্তমানে পরিস্থিতি পাল্টেছে আমূল। ফলে এখন টেনে টুনে বিজেপি পেতে পারে ৯৫থেকে ১০৩টি আসন।অন্যদিকে ধূমকেতুর মতো প্রাসঙ্গিক হয়ে যাওয়া কংগ্রেস পেতে পারে ৮২-৯৩টি আসন। ফলে যে কোনো মুহূর্তে সামান্য ভোটব্যাংকে এদিক ওদিক হলেই যে বিজেপি ‘গড়’ এ পরিবর্তন হতে পারে তা নিয়ে সন্দেহ নাই শাসক বিরোধী দুই শিবিরেই। অন্যদিকে গুজরাট ভোটে বিজেপি ক্ষমতাচ্যুত হলে বা গতবারের তুলনায় ফল মারাত্মক খারাপ হলে তা সরাসরি প্রভাব ফেলবে দেশীয় রাজনীতিতে। তাই গুজরাট ভোট যেমন বিজেপির প্রেস্টিজ ইস্যু তেমনি বিরোধীদের কাছে এই ভোট প্রধান অস্ত্র কেন্দ্রে বিজেপিকে ক্ষমতাচ্যূত করার।

ADVERTISEMENT
ADVERTISEMENT

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *