“আফতাব” এবার মরমিয়ার সাথে


Notice: Undefined offset: 0 in /home/khasskh/public_html/wp-content/plugins/techlineinfo-social-count/msssh.php on line 21

Notice: Undefined offset: 0 in /home/khasskh/public_html/wp-content/plugins/techlineinfo-social-count/msssh.php on line 21
SHARES
Share on FacebookShareTweet on TwitterTweet

“আফতাব” এবার মরমিয়ার সাথে।

সোহিনী, শুভায়ন; কোলকাতা: একি শুধু তাদের লড়াই? না আমাদেরও। এই উদ্যোগ নিয়ে এগিয়ে এলো যাদবপুর স্পন্দন নাট্য সঙ্ঘ। সমাজের এক লড়াইকে সামনে রেখে যাদবপুর স্পন্দনের অশ-মিলের পর আরো এক চিরস্মরণীয় প্রযোজনা আফতাব।

“আফতাব” শুধু একটি চরিত্র না, এক ভাষার লড়াই, বলা যেতে পারে ভাষা স্বাধীনতার যুদ্ধ। এই নাট্যের রচনা এবং নির্দেশনা সৈকত চক্রবর্তীর হাতে। প্রধান চরিত্র আফতাবের ভূমিকায় অভীক চট্টোপাধ্যায় বরাবরের মতো ই আসাধারণ। এছাড়া অন্যান্য চরিত্রে প্রলিপ্তা রাতুল, সুমন, শ্রীময়ী প্রমুখ যোগ্য সঙ্গত দিয়েছে আফতাব কে।

ভারতের সংবিধানে হিন্দির সাথে উর্দূ ভাষা কেও সম মর্যাদা দেওয়া হয়ে থাকলেও রাজনৈতিক সংকৃণতার কারণে সে ভাষার চর্চা করা হয়না। আফতাব চৌধুরীর মতো লোকেরা উর্দূ ভাষা নিয়ে কাজ করলে তাদের জঙ্গী আখ্যা দিয়ে গারদের পিছনে ঠেলে দেওয়া হয়। ।উর্দূ ভারতেও চর্চা করা যায়। দাড়ি রাখা আর উর্দূ ভাষার চর্চা করা মানে পাকিস্তানি গুপ্তচর নয়। সেখানেই লড়াই আফতাবের। বিশ্বদরবারে ভাষার জয়। হারতে শেখেনি কিছু মানুষ, আফতাব সেই সব মানুষের পথপ্রদর্শক। আমাদের শেখায় শিড়দাঁরা শক্ত করে লড়াই করার।

নাট্যকেন্দ্র নতুন হলেও তারা প্রত্যেকেই দক্ষ তা তাদের উপস্থাপনা দ্বারা প্রমাণিত হয়। থিয়েটার ফেস্টিভেলে একাধিক নামজাদা দলের সাথে সমানে সমানে টেক্কা দেয় এক বছর আগে জন্ম নেওয়া যাদবপুর স্পন্দন নাট্য সঙ্ঘ। “অসমিল” তাদের পূর্ব প্রদর্শন যেমন ভাবে এক সামাজিক চেতনা কে জাগ্রত করেছিলো, আফতাব ও সেভাবেই মানুষ কে ভাবায় মর্যাদা নিয়ে বাঁচতে। দেশের কালো স্তর অর্থাৎ ভাষাভেদ, রাজনৈতিক কুৎসা, প্রশাসনিক কুৎসাকে তুলে ধরে আফতাব। মরমিয়া ফিল্ম ফেস্টিভালের দ্বিতীয় দিনে তপন থিয়েটারে সবাই যেন সামিল ছিলো সেই ভাষার যুদ্ধে।

মরমিয়ার উদ্যোগে নাট্য প্রদর্শন করার সুযোগ পেলেন বহু নাট্যদল। তিনদিন ব্যাপী এই ফেস্টিভেলে অংশ নেয় বহু দল। “নাটক পিছিয়ে পড়বে না” আর সেই প্রচেষ্ঠা নিয়ে তিনদিন ব্যাপী এই প্রয়াস। আর সেখানেই নতুন করে মানুষ কে সংগ্রামের ভাষা খুঁজে দিলো আফতাব চৌথুরী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *